আমরা যেন সরকারি মাল, যে যখন খুশি বিয়ে দেয়: পপি

অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। তার বিয়ে নিয়ে এর আগেও অসংখ্যবার গুঞ্জন উঠেছে। তবে এবারের গুঞ্জন শুধু বিয়েতেই সীমাবদ্ধ নেই। বিভিন্ন খবরে প্রকাশ- একবছর আগে ষাটোর্ধ্ব বিবাহিত এক প্রকৌশলীকে গোপনে বিয়ে করেছেন পপি! তারা রাজধানীর বারিধারায় বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে বসবাস করছেন।

এমন খবরে চটেছেন এই নায়িকা। এতদিন এ বিষয়ে তার কোনো মন্তব্য পাওয়া না-গেলেও এবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। পপি বলেন, ‘শিল্পীরা যেন সরকারি মাল, যার যখন মন চায় যা খুশি লিখে দেন, মন চাইলে বিয়েও দিয়ে দেন। কিন্তু কোনো শিল্পী যখন না-খেয়ে থাকে, তখন কেউ টাকা দেন না, তাকে খাবার দিতেও আসেন না। আমরা সারাজীবনই দেখছি, কিছুসংখ্যক লোক শিল্পীদের এভাবে বিক্রি করেই খায়। সবচেয়ে বড় কথা হলো, যখন দেখি সংবাদমাধ্যম মিথ্যে সংবাদ ছাপছে, তখন আর বিশ্বাসের স্থান থাকে না।’

বিয়ে করা কোনো অপরাধ নয়? এমন প্রশ্নের জবাবে পপি বলেন, ‘হ্যাঁ, বিয়ে করা কোনো অপরাধ নয়। কিন্তু একজনকে যার-তার সঙ্গে বিয়ে দেওয়া তো অপরাধ! এদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা উচিত। দেখি, আমি একটু ঝামেলায় আছি। ঝামেলামুক্ত হয়েই লিগ্যাল অ্যাকশনে যাব।’

পপি দীর্ঘদিন ধরে অন্তরালে রয়েছেন। মুঠোফোন কিংবা ফেসবুকে তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। সম্প্রতি সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘সাহসী যোদ্ধা’ সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন পপি। এছাড়া ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ সিনেমার কাজও শেষ করেছেন এই অভিনেত্রী।

Leave A Reply

Your email address will not be published.