বগুড়ার সান্তাহারে সরস্বতীর পূজা উদযাপন

নেহাল আহম্মেদ প্রান্ত: আদমদীঘির সান্তহারে করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বড় ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার দেবী সরস্বতীর পূজা উদযাপন হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের বিশ্বাস ও সংস্কৃতি মতে, এ দিনটিতে দেবী সরস্বতী জন্মগ্রহণ করেছিলেন। দিনটিকে বলা হয় ‘বসন্ত পঞ্চমী’। সরস্বতী জ্ঞান ও বিদ্যার দেবী। তার জন্য হিন্দু ভক্ত, বিশেষ করে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মন্দিরগুলোতে সরস্বতী পূজার আয়োজন করে থাকে।

প্রতি বছরের ন্যায় আজ মঙ্গলবার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহরের বিভিন্ন স্থানে  পূজার আয়োজন থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে উৎসাহ উদ্দীপনার ঘাটতি ছিলো। তবে মন্দিরগুলোতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আরাধনা চলেছে। সকাল ৮টা থেকে পূজা শুরু হয়। সন্ধ্যায় ছিলো আরুতি অনুষ্ঠান। পূজা ছাড়াও পুষ্পাঞ্জলি প্রদান, হাতেখড়ি, প্রসাদ বিতরণ, ধর্মীয় আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সন্ধ্যা আরতি ও আলোকসজ্জার আয়োজন ছিলো। ভক্ত ও দর্শনার্থীরা সান্তাহারে বিভিন্ন স্থান ঘুরে পূজা দেখেছেন। তারা অঞ্জলি দিয়েছেন ও প্রসাদ গ্রহণ করেছেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেছেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি থাকায় এবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজার আয়োজন করা হয়নি।

সান্তাহার বড়আখিড়া গ্রামের পুরোহিত শুভ চক্রবর্ত্তী বলেন এ দিনটিতে দেবী সরস্বতী জন্মগ্রহণ করেছিলেন। দিনটিকে বলা হয় ‘বসন্ত পঞ্চমী’। সরস্বতী জ্ঞান ও বিদ্যার দেবী। এবছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বিভিন্ন এলাকার পাড়াই মহল্লাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা পরিচালনা করা হচ্ছে।

সান্তাহার দৈনিক বাজার পূজা উদযাপন সদস্য কানাই দেবনাথ বলেন এ বছর করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি থাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজার আয়োজন করা সম্ভব না হলেও বিভিন্ন পাড়াই মহল্লার মন্দির ও বাড়িতে পূজার আয়োজন করা হয়।

Attachments area

Leave A Reply

Your email address will not be published.