সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য, পুলিশের বাধায়ও থেমে নেই জব্বারের নির্মান কাজ – Latest breaking news in bangla ৷ channel26

সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য, পুলিশের বাধায়ও থেমে নেই জব্বারের নির্মান কাজ

Jakir Hossain
প্রকাশিত এপ্রিল ২৩, ২০২২
সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য, পুলিশের বাধায়ও থেমে নেই জব্বারের নির্মান কাজ

 

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:

নাসিক ৫ নং ওয়ার্ডের কলাবাগ এলাকায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা আমান্য করে জমি দখলের চেষ্টায় জোরপূর্বক বসত-বাড়ি নির্মাণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে জব্বার সাউথ (৫০) এর বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ কয়েকদফা বাধা দিলেও থেমে নেই ভুমিদস্যু জব্বারের নির্মান কাজ। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শওকত জামিল শুক্রবার রাতে ও শনিবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্মান কাজ বন্ধ করে দিলেও পুলিশ যাওয়ার পরে আবার শুরু হয় নির্মান কাজ। এর আগে বৃহস্পতিবার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তম্নয় ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ বন্ধ করে দেন এবং উভয় পক্ষকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশ দেন। এসময় পুলিশের উপস্থিতিইে জব্বার প্রতিপক্ষ আব্দুর রহিম (৫৮) কে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে বলে আপনি কিভাবে রাত্রে বাড়িতে থাকেন সেটা আমি দেখে নিবো। বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটে।
জানাগেছে, সিদ্ধিরগঞ্জ কালাবাগান এলাকায় ০২.৭৫ শতাংশ জমির মালিকানা নিয়ে জব্বার সাউথ ও ওয়ারিশ দাবিদার আব্দুর রহিম গংদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এ ঘটনায় আব্দুর রহিম ২০ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ আদালতে একটি পিটিশন মোকদ্দমা দায়ের করেন। যার নং ৩৩৬/২২।

আদালত উক্ত মোকদ্দমা আমলে নিয়ে অফিসার ইনচার্জ সিদ্ধিরগঞ্জ থানাকে নালিশা জমিতে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে আদেশ প্রদান করেন। এরআগেও ওয়ারিশ দাবিদার জয়নাল আবেদীন গং গত বছরের ১৭ আগষ্ট আদালতে দেওয়ানী মামলা করেন। এছাড়াও ওয়ারিশ ইসমাইল হোসেন ও কুলসুম বেগম এর পুর্বে ভুমিদস্যু জব্বারের বিরুদ্ধে সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করে বসতি নির্মাণ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মো. ইসমাইল বলেন, আমি সহ আমার আপন ভাই এবং চাচাতো ভাই বোন ওয়ারিশ সূত্রে এই সম্পত্তির মালিক আমাদের সম্পত্তি এখনো ভাগ বাটোয়ার হয়নি যৌথভাবে যার যার দখলে আমরা ভোগ দখল করে আসছি।
বিবাদী ভুমিদস্যু জব্বার আমাদের ওয়ারিশের মধ্য থেকে আমার ভাই টিটু মো. রানা, মো. গিয়াস উদ্দিনদের অংশের স¤পত্তি ৮০৮, ৮০৯, ৮১০ দাগে মোট-৪৭.৬২শতাংশ জমি থেকে ০২.৭৫ শতাংশ জমি খরিদ করে। কিন্তু বিবাদি তার খরিদ সম্পত্তি চেয়ে বেশি জমি দখল করে আসছে জোরপূর্বক।

এই বিষয়ে আমিসহ অন্যান্য ওয়ারিশগণ বিজ্ঞ আদালতে বন্টন নামা মামলা সহ মিস কেস করি, মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে এবং বিজ্ঞ আদালত জমিতে উভয়পক্ষকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার নির্দেশ দেন। বিবাদী ভুমিদস্যু ও প্রভাবশালী হওয়ায় সে বিজ্ঞ আদালতের আদেশ অমান্য করে জোরপূর্বক জমিতে কাজ করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক এস আই তম্নয় বলেন, জব্বার এর বিরুদ্ধে জায়গা দখলের মামলা আদালতে চলমান। আদালত থেকে নিষেধাজ্ঞা নোটিশ জারি হয়েছে তার ধারাবাহিকতায় আমরা ঘটনাস্থলে এসে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য কাজ বন্ধ করে দেই।
বাদী পক্ষের লোকজন জানায় জব্বার একজন সন্ত্রাসী ও ভুমিদস্যু আমরা তার বিরুদ্ধে সঠিক তদন্ত পুর্বক সুষ্ঠ সমাধান চাই। আদালত থেকে যে রায় দিবে আমরা তা মেনে নিবো।