ভুমিদস্যু জব্বারের খুটির জোর কোথায়? সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক জমি দখল করার অভিযোগ – Latest breaking news in bangla ৷ channel26

ভুমিদস্যু জব্বারের খুটির জোর কোথায়? সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক জমি দখল করার অভিযোগ

Jakir Hossain
প্রকাশিত এপ্রিল ২১, ২০২২
ভুমিদস্যু জব্বারের খুটির জোর কোথায়? সিদ্ধিরগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক জমি দখল করার অভিযোগ

 

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ নাসিক ৫নং ওয়ার্ড বাজার সংলগ্ন এলাকা জব্বার সাউথ (৫০) এর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতের নিষেধাজ্ঞা আমান্য করে জমি দখল ও জোরপূর্বক বসত-বাড়ি নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। জমির ওয়ারিশ জয়নাল আবেদীন গং নারায়ণগঞ্জ যুগ্ন জেলা জজ ১ম আদালতে দেওয়ানী মামলা নং ২৭৪/২০ এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৭/৮/২১ ইং তারিখে উক্ত জমিতে বিবাদীগনের বিরুদ্ধে নিষেদাজ্ঞার আদেশ প্রদান করেন।বিবাদী আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে কাজ করার কারনে উক্ত জমির অন্য এক ওয়ারিশ আব্দুর রহিম (৫৮) গত ২০/৪/২২ ইং তারিখ নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি পিটিশন মোক্দ্দমা দায়ের করেন যার নং ৩৩৬/২২ । বিজ্ঞ আদালত উক্ত মোক্দ্দমা আমলে নিয়ে অফিসার ইনচার্জ সিদ্ধিরগঞ্জ থানাকে নালিশা জমিতে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে আদেশ প্রদান করেন। আদালতে আদেশ বাস্তবায়ন করতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এর নির্দেশে ২১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক এসআই তম্নয় ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দেন। ঘটনাস্থলে এসআই উভয়পক্ষকে আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করার নির্দেশনা প্রদান করেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের সামনেই বিবাদী ভুমিদস্যু জব্বার মামলার বাদী আব্দুর রহিমকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে বলে আপনি কিভাবে রাত্রে বাড়িতে থাকেন সেটা আমি দেখে নিবো।
এদিকে জমির মালিক মোঃ ইসমাইল হোসেন ও কুলসুম বেগম এর পুর্বে ভুমিদস্যু জব্বার এ বিরুদ্ধে সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করে বসতি নির্মাণ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের করেন। যে অভিযোগ গুলো থানা পুলিশ ইতিমধ্যে তদন্ত করছেন বলে জানাযায়। এ বিষয়ে জমির মালিক ভুক্তভোগী মোঃ ইসমাইল হোসেন বলেন, আমি সহ আমার আপন ভাই এবং চাচাতো ভাই বোন ওয়ারিশ সূত্রে এই সম্পত্তির মালিক আমাদের সম্পত্তি এখনো ভাগ বাটোয়ার হয়নি যৌথভাবে যার যার দখলে আমরা ভোগ দখল করে আসছি, বিবাদী ভুমিদস্যু জব্বার আমাদের ওয়ারিশের মধ্য থেকে আমার ভাই টিটু মোঃ রানা, মো.গিয়াস উদ্দিনদের অংশের সম্প্রতি মোট , ৮০৮,৮০৯, ৮১০ দাগে মোট-৪৭.৬২শতাংশ জমি থেকে ০২.৭৫ শতাংশ জমি খরিদ করে, কিন্তু বিবাদি তার খরিদ সম্পত্তি চেয়ে বেশি জমি দখল করে আসছে জোরপূর্বক। এই বিষয়ে আমি সহ অন্যান্য ওয়ারিশগণ বিজ্ঞ আদালতে বন্টন নামা মামলা সহ মিস কেস করি, মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে এবং বিজ্ঞ আদালত জমিতে উভয়পক্ষকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার নির্দেশ দেন । বিবাদী ভুমিদস্যু ও প্রভাবশালী হওয়ায় সে বিজ্ঞ আদালতের আদেশ অমান্য করিয়া জোরপূর্বক জমিতে কাজ করে আসছে, এলাকাবাসী জানায় যে কোন উপায়ে তিনি নাকি জমি দখল করবে এবং এতে করে উক্ত জমি নিয়ে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। বিবাদী ভুমিদস্যু জব্বার এলাকায় সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করিতেছে, যেকোনো সময় বড় ধরনের শান্তি-শৃঙ্খলা বিবেদ হইতে পারে। এলাকাবাসী বিবাদীর এমন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে প্রশ্ন রেখে বলেন ভুমিদস্যু সন্ত্রাসী জব্বারের খুটির জোর কোথায়।
এ বিষয়ে এলাকার স্থানীয় সালিশি বৈঠকের প্রতিনিধি ও সিদ্ধিরগঞ্জ ইনিয়ন যুবলীগের সাংঠনিক সম্পাদক আবু জাফর প্রধান বলেন, জব্বার স্থানীয় ভুমিদস্যু ও সন্ত্রাসী প্রকুতির লোক আমাদের এলাকার মুরুব্বি সমাজের বিচারক আবদুল মতিন প্রধান সহ আমরা উক্ত বিচারে বাদী বিবাদীকে আদালতের মাধ্যেমে সমাধান করার জন্য স্থানীয়ভাবে রায় প্রদান করি। কিন্তু বিবাদী জব্বার পরবর্তিতে আদালতের আদেশ অমান্য করে ও আদালতের রায় তার বিরুদ্ধে আসার কারনে সে স্থানীয় বিচারকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও অপবাদ দেয়ার হুমকিসহ বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক এস আই তম্নয় বলেন জব্বার এর বিরুদ্ধে জায়গা দখলের মামলা বিজ্ঞ আদালতে চলমান, বিজ্ঞ আদালত থেকে নিষেধাজ্ঞা নোটিশ জারি হয়েছে তার ধারাবাহিকতায় আমরা ঘটনাস্থলে এসে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য কাজ বন্ধ করে দেই এটি সম্পূর্ণ বিজ্ঞ আদালতের বিষয়। উক্ত অভিযোগের বিষযে জব্বার বলেন, আমি টাকার বিনিময়ে জমি ক্রয় করিয়াছি, আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে কাজ করতে গেলে বাদী পক্ষ আমাকে বাধা দিচ্ছে। আমি এর সুষ্ঠ সমাধান চাই।