দেশের মানুষের পরিবর্তন হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী – Latest breaking news in bangla ৷ channel26

দেশের মানুষের পরিবর্তন হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

Jakir Hossain
প্রকাশিত মে ১৫, ২০২২
দেশের মানুষের পরিবর্তন হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আজ মানুষের মাথাপিছু আয় প্রায় তিন হাজার ডলার ছুঁই ছুঁই। আমরা দেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছাতে চাই। উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হলে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রয়োজন। শেখ হাসিনা যদি অব্যাহতভাবে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পান তাহলে ২০৪১ সালের আগেই দেশ উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হবে।

শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস সম্মেলন কক্ষে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দশ উদ্যোগে নারীর ক্ষমতায়ন’ বিষয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সিঙ্গাপুরে লিক ওয়ান এক নাগাড়ে সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিল। তার পুত্র এখন প্রায় দুই দশকের কাছাকাছি ধরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছে। যেই দলের নেতৃত্বে সিঙ্গাপুর স্বাধীনতা অর্জন করেছিল সে একই দল রাষ্ট্রক্ষমতায় আজ পর্যন্ত। মালয়েশিয়া যে দলের নেতৃত্বে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল, দীর্ঘ পঞ্চাশ বছরের বেশি সেই দল রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিল। মাহাথির মোহাম্মদ এক নাগাড়ে ২২ বছর সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। সুতরাং রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে যদি গুজব ছড়ানোর অপরাজনীতি না থাকত, দেশ আরো এগিয়ে যেতে পারত। ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে অবশ্যই দেশকে স্বপ্নের ঠিকানায় নিয়ে যেতে পারব। নারীর অগ্রগতির মাধ্যমে দেশের অগ্রগতি এমন পর্যায়ে যেন আমরা নিতে পারি, দেশ যেন স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে যায়।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের পরিবর্তন হয়েছে। এত অপপ্রচার, প্রতিবন্ধকতা, রাজনীতির জন্য মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করা, জনগণের সম্পত্তি বিনষ্ট করা, নিরীহ মানুষের ওপর পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করা, সবকিছুতে না বলা এবং দেশে-বিদেশে থেকে অপপ্রচারের রাজনীতি, এত কিছুর মধ্যেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নীরব বিপ্লব ঘটে গেছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতিসংঘের মহাসচিব, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ সবাই বাংলাদেশের প্রশংসা করে, সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তো তার বাবার দেশ কেনিয়াতে বলেছিল, আফ্রিকার দেশগুলোর বাংলাদেশ থেকে শেখা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, বিএনপিসহ তার মিত্র এবং রাত ১২টার পর টেলিভিশনে সক্রিয় হওয়া ভুল ধরা পার্টি প্রশংসা করতে পারে না। আর কেউ কেউ আছেন ঢাকা ও চট্টগ্রামে প্রেস ক্লাবের সামনে রাস্তা গরম করেন, তারাও প্রশংসা করতে পারেন না।

ড. হাছান বলেন, আমরা বলেছিলাম ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত করব। ২০২১ সাল আসার দুই বছর আগে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হওয়ার জন্য কোয়ালিফাই করেছে। এখন বলেছি ২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে একটি উন্নত সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত করব। শেখ হাসিনা যদি অব্যাহতভাবে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পান তাহলে ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হবে।

তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পৃথিবীর সামনে উদাহরণ। নারীর ক্ষমতায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ পুরস্কারসহ বেশ কয়েকটি পুরস্কার পেয়েছেন। সাড়ে ১৩ বছর আগে আমাদের দেশে কি কেউ কখনো ভেবেছে, একজন জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, ডিআইজি, সচিব, স্পিকার মহিলা হবেন, এটা কেউ ভাবেনি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক বলেন, ক্ষমতায়ন এমন একটা বিষয় কেউ কাউকে ক্ষমতা দিতে চায় না। কারণ আমি যদি আমার ক্ষমতাটা ছেড়ে দেই, তাহলে আমার স্ত্রী ক্ষমতার অধিকারী হবে। বর্তমানে আমাদের জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। সেই অর্ধেক নারী যদি দেশের কাজে না আসেন তাহলে কিন্তু দেশ এগিয়ে যাবে না।

বাসসের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে ও চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান কলিম সরওয়ারের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক ড. বদিউল আলম। আলোচনা সভায় পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন করেন বাসসের বিশেষ সংবাদদাতা মাহফুজা জেসমিন।

অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে নারী নেত্রী জেসমিন সুলতানা পারু, চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বারের সাবেক সহসভাপতি আইভি হাসান, তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধি সাগরিকা বক্তব্য দেন।